আধুনিক বোরকা ডিজাইন (২০২৩) ইসলামে আধুনিক বোরকা পরা নিয়ে বিস্তারিত

 

ইসলাম এ শব্দটা শুনতে যতটা সুন্দর লাগে শব্দটার মানে টা ঠিক ততটাই সুন্দর। ইসলাম ধর্মের সবচেয়ে সুন্দর একটি দিক হচ্ছে ইসলামে শালীনতা বজায় রাখা গভীরভাবে শিক্ষা দেয়। শালীনতা রক্ষা করা বলতে শুধু মেয়েদের জন্য ছেলেদের কেউ যায় তবে সে ক্ষেত্রে মেয়েদের পর্দা করা ফরজ। আমরা যারা আছি তারা যখন বাইরে যায় তখন অবশ্যই আমাদের সারা বডি ঢাকা এমন কিছু পড়ে যায় তবে সেটা অবশ্যই গলি ধাকা মানে আমি বোরকা কেই বুঝিয়েছি। বোরকাটা যেন হয় শালীনতা বজায় রাখার মত ইসলামের চোখের পর্দা করা বা শালীনতা বজায় রাখা হবে।



আজ আমরা জানবো আধুনিক বোরকা ডিজাইন এবং আধুনিক বোরকার ডিজাইন করা আদৌ নারীদের জন্য ঠিক কিনা সে সম্পর্কে কিছু তথ্য। তবে তার আগে এক নজরে দেখে নেই আধুনিক বোরকা ডিজাইন নিয়ে  আজকের এই পোষ্ট টি তে কি কি থাকছে।

সূচিপত্র: আধুনিক বোরকা ডিজাইন

আধুনিক বোরকা ডিজাইন সম্পর্কিত তথ্য

বোরকার দ্বারা উদ্দেশ্য হলো মাথা থেকে পা পর্যন্ত ঢেকে দেয়া যাতে করে পুরুষের নজর শরীরে না পড়ে। উপরোক্ত উদ্দেশ্যটি শরীর ঢেকে দেয় এমন প্রতিটি বোরকা দ্বারা অর্জিত হয়ে যায়। অফিশিয়াল রাখা যেন এমন না হয় যার উপরের অংশ থেকেই পুরুষের আকর্ষিত করে। হিসেবে কালো বোরকা পরিধান করার সর্বোত্তম। যদি ডিজাইন করা বোরকা পরিধান করা হয় পুরুষকে আকৃষ্ট করার জন্য তাহলে খারাপ মেয়েদের কারণে উক্ত মহিলা গুনাহগার হবে। কিন্তু এ কারণে এসব বিক্রি গাড়ির উপর অর্পিত হবে না তাই সব ধরনের বোরকা বিক্রি করা যাবে। আয়েশা (রাযি) হতে বর্ণিত তিনি বলেন আল্লাহর রাসূল সাঃ ফজরের সালাত আদায় করতেন আর তার সঙ্গে অনেক মুমিন মহিলা চাদর দিয়ে গা ঢেকে শরীর ক্ষত অতঃপর তারা নিজ নিজ ঘরে ফিরে যেত আর তাদের কেউ চিনতে পারতো না [সহি বুখারি হাদিস নং ৩৭২] 

অর্থাৎ এ দ্বারাই বোঝা যাচ্ছে নারীদের বোরকা পড়া ফরজ অর্থাৎ নারীদের পর্দা করা ফরজ তাই তারা এমন পর্দা করবে যেন সে পর্দা দেশে কোন পুরুষ আকৃষ্ট না হয় বা আকর্ষণ বোধ না করে ওই নারীর প্রতি। এই দিকটা অবশ্যই যেকোনো নারীকে খেয়াল রাখা উচিত যেন তার প্রতি পুরুষ তার তার বাহ্যিক কোন অংশ না দেখতে পারে যখন সেই নারী বোরকা পরিহিত থাকবে। আমরা এখানে আধুনিক বোগ্রা বলতে এটা বুঝেছি না যে সেটা ইসলামবিরোধী। 

আধুনিক বোরকা বলতে আজকের দিনে যে পোকাগুলো বাজারে আসছে অবশেষে গুলো দিও আমরা পর্দাটা করতে পারি তবে আমাদের মনে যেন এটা না থাকে যে আমি বাইরে গেলে আমাকে কোন পুরুষ দেখে আকর্ষণ বোধ করবে সুন্দর বোধ করবে তাই আমি এই বোকাটা পরবো। এটা মনে করে কখনোই কোনো রকম বোরকা পরা যাবে না হোক সেটা আধুনিক হোক সেটা ইসলামিক। অবশ্যই নারীকে তার মন সংযত রাখতে হবে তার চিন্তাধারা সংযত রেখেই পর্দা করতে হবে। এসব গুলো দিক খেয়াল রেখে একজন নারী আধুনিক বোরকা পরিহিত করে যেকোন জায়গায় যেতে পারবে। 

আধুনিক বোরকা ডিজাইন পিক

আমি নিচে কিছু আধুনিক বোরকা ডিজাইন এর পিক দিচ্ছি দেখে নিন এবং জেনে নিন যে কোন গুলো আধুনিক বোরকা ডিজাইন।












এইসব দেখে নিন আশা করছি ভালো করে চিনে নিতে পেরেছেন যে কোন গুলো আধুনিক বোরকা ডিজাইন। এইগুলো এই হল আধুনিক বোরকা ডিজাইন। এবার চলুন জেনে নিই বোরকা সম্পর্কিত কিছু তথ্য আরো,

আধুনিক বোরকা ডিজাইন ও কিছু হাদিস

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন দুই প্রকার জাহান্নামী মানুষ আসবে যাদেরকে আমি আমার যুগে দেখতে পাচ্ছিনা একপ্রকার হচ্ছে ওই সব নারী যারা কাপড় পরেও উলঙ্গ থাকে তারা সাজসজ্জা করে পর পুরুষকে আকৃষ্ট করবেন এবং নিজেরা অন্য পুরুষদের প্রতি আকৃষ্ট থাকবেন তাদের মাথার খোপা সাজসজ্জা অপারেশনের কারণে উটের কুজের মত পূজা এদিক-ওদিক থাকবে তারা জান্নাতে প্রবেশ করবে না এমনকি তারা জান্নাতের সুঘ্রাণ ও পাবে না অথচ জান্নাতের সুঘ্রাণ ৫শ বছর রাস্তার দূরত্ব থেকে অনুভব করা যায়।(মুসলিম) হাদিসে উল্লেখিত পোশাক কাপড় পরেও উলঙ্গ থাকে মর্মার্থ হচ্ছে যেসব নারী এমন পাতলা কাপড় পড়ে যার ফলে কাপড়ের উপর থেকে ভেতরের শরীরের চামড়া ও পসম দেখা যায়।

আবার এমন টাইট বা আঁটসাঁট পোশাক পরে যে তাতে তাদের শরীরের আকার আকৃতি সুষ্ঠু ভাবে দেখা যায়। তারাও এ কথার সঙ্গে জড়িত,যারা পরিপূর্ণ পর্দা করে না বরং পর্দার নামে ফ্যাশন করে বিভিন্ন ডিজাইনের টাইট ফিটিং বোরকা পড়ে যার ফলে তাদের শরীরের গঠন ও আকৃতি স্পষ্ট ভাবে ফুটে উঠে।

আল্লাহ তা'আলা জাহান্নামের শাস্তির বর্ণনা সুষ্ঠুভাবে কুরআনুল কারীমে তুলে ধরেছেন এভাবে "নিশ্চয়ই সীমালংঘনকারীদের জন্য জাহান্নাম শত্রুর মতো ওর পেতে বসে থাকবে, তারা সেখানে শতাব্দীর পর শতাব্দী অবস্থান করবে কিন্তু সেখানে তৃপ্তিদায়ক কোন খাবার বা পানীয় আস্বাদন করবে না। তাদেরকে শুধুমাত্র ফুটন্ত গরম পানি ও দুর্গন্ধযুক্ত পোজ হবে এটাই হচ্ছে তাদের উপযুক্ত প্রতিদান কারণ তারা হিসাব-নিকাশের কোন পড়ুয়া করতো না আর আমার আয়াতসমূহকে মিথ্যা বলত"।

আধুনিক বোরকা ডিজাইন নিয়ে শেষ কথা

আমরা অবশ্যই ইসলাম ও তার শরীয়ত মেনে চলব এবং ঠিক মতো পর্দা করব। মহান আল্লাহতালা আমাদের বেপর্দা থেকে রক্ষা করুন এবং পর্দাশীল হিসেবে এই দুনিয়াতে থাকার তৌফিক দান করুন আমিন। আশা করছি আজকের আমাদের আধুনিক বোরকা ডিজাইন এই আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগেছে।যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই শেয়ার করে দেবেন বন্ধুদের মাঝে,আবার আসব নতুন কিছু নিয়ে ততদিন পর্যন্ত ভালো থাকবেন ধন্যবাদ।

Next Post
No Comment
Add Comment
comment url