মুজিব বর্ষ অনুচ্ছেদ [২টি] - (২০২৩ আপডেট)

মুজিব বর্ষ অনুচ্ছেদ, মুজিব বর্ষ অনুচ্ছেদ রচনা, (মুজিব বর্ষ অনুচ্ছেদ Class 1, 2, 3, 4, 5, 6, 7, 8, 9, 10) (মুজিব বর্ষ অনুচ্ছেদ ১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ, ৫ম, ৬ষ্ঠ, ৭ম, ৮ম, ৯ম, ১০ম শ্রেণি) মুজিব বর্ষ অনুচ্ছেদ নিচে দেওয়া হয়েছে। 100 - 150 শব্দ, লিখন, 2023, ক্লাস ১০, jsc, ssc, hsc)

মুজিব বর্ষ অনুচ্ছেদ [২টি] - (২০২৩ আপডেট)

"মুজিব বর্ষ অনুচ্ছেদ"

বাঙালি জাতির ভাগ্যাকাশে যেসকল নক্ষত্র কোন এককালে উদয় হয়েছিল তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন শেখ মুজিবুর রহমান। বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০০ তম জন্মবার্ষিকী যা কিনা "মুজিব বর্ষ" নামে ইতোমধ্যে পরিচিতি লাভ করেছে, তা যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে পালন করা হবে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ২৬ মার্চ পর্যন্ত অর্থাৎ ২০২১ সালের ৫০ তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন পর্যন্ত। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেছিলেন। সারা দেশ তার অনুশক বার্ষিকী ব্যাপক উদ্দীপনার সাথে পালন করবে। বছর-ব্যাপী অনুষ্ঠিতব্য অনুষ্ঠান পালনে সাধারণ জনগণের অংশগ্রহন থাকবে, সাথে শিশু-কিশোর এবং ব্যয়স্ত লোকেরাও থাকবে। অনুষ্ঠান উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচী যেমন রচনা প্রতিযোগিতা, চিত্র ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা, পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ২০২০ সাল জুড়ে এবং তা চলতে থাকবে ২০২১ সালের ২৬ মার্চ পর্যন্ত। এ উপলক্ষে কিছু সংখ্যক বই প্রকাশ করা হবে, যাতে থাকবে বঙ্গবন্ধুর বিভিন্ন কর্মকান্ড, বাংগালী জাতিকে মুক্ত করার জন্য বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামের ইতিহাস ইত্যাদি। আমৃত্যু বাঙালি তথা বাংলাদেশের হিতের কথা চিন্তা করে যাওয়া মুজিবুর রহমানের বাংলাদেশ তার শাসনকালে আদৌ সেই কাঙ্খিত সোনার বাংলা হয়ে উঠতে পেরেছিল কিনা তা বিচার্য নয়।

"মুজিব বর্ষ অনুচ্ছেদ"

মুজিব বর্ষ হলো বাংলাদেশের জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী পালনের জন্য ঘোষিত বর্ষ। স্বাধীনতার ৪৯ বছর অতিক্রম করে ৫০ এ পা দিয়েছে বাংলাদেশ। স্বাধীনতা যুদ্ধের নায়ক শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বর্ষ চলছে এখন। তার মধ্যেইশুরু হয়েছে স্বাধীনতার সুকাজয়ন্তী উৎসব। ২০২০ এর ১৭ মার্চ মুজিবের জন্মদিন থেকে এক বছর ২০২১ এর ১৬ মার্চ পর্যন্ত মুজিব বর্ষ পালনের পরিকল্পনা করেছিল বাংলাদেশ সরকার। কিন্তু করোনা অতিমারিতে কিছূই সেভাবে করা যায় নি। এই পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ সরকার মুজিব বর্ষের মেয়াদ আরও ৯ মাস বাড়িয়েছে। অর্থাৎ ২০২১ সালের ১৬ই ডিসেম্বর পর্যন্ত থাকবে এই স্মারক বর্ষ। শেখ মুজিবুর রহমান ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ, ফরিদপুর জেলার গোপালগঞ্জ টুঙ্গিপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা শেখ লৎফুর মুজিব এবং মা শেখ সায়েরা খাতুন। চার কন্যা এবং দুই পুত্র সন্তানের মধ্যে শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন তৃতীয়। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে শেখ মুজিবুর রহমান ওতপ্রোতভাবে জড়িত থাকায় ঘোষিত বর্ষটি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। মুজিববর্ষের লোগোর নকশা করেন সব্যসাচী হাজরা। একথা সন্দেহাতীত যে জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত জাতির নায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গান থেকে উপমা নিয়ে এক সত্যিকারের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url