যানজট অনুচ্ছেদ [৩টি] - (২০২৩ আপডেট)

যানজট অনুচ্ছেদ, যানজট অনুচ্ছেদ রচনা, (যানজট অনুচ্ছেদ Class 1, 2, 3, 4, 5, 6, 7, 8, 9, 10) (যানজট অনুচ্ছেদ ১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ, ৫ম, ৬ষ্ঠ, ৭ম, ৮ম, ৯ম, ১০ম শ্রেণি) যানজট অনুচ্ছেদ নিচে দেওয়া হয়েছে। 100 - 150 শব্দ, লিখন, 2023, ক্লাস ১০, jsc, ssc, hsc)

যানজট অনুচ্ছেদ [৩টি] - (২০২৩ আপডেট)

"যানজট অনুচ্ছেদ Class 7"

নাগরিক জীবনে সুবিধার পাশাপাশি বিভিন্ন রকমের অসুবিধাও আছে। শহুরে জীবনে এটি একটি বড় সমস্যা। যখন রাস্তার কোন স্থানে পরিবহন একত্র হয়ে যায় তখন পরিবহনটি যথাসময় যথাস্থানে পৌঁছাতে পারে না। এ ধরনের অবস্থাকে যানজট বলে। শহরের মানুষ প্রত্যহ এ সমস্যার মুখোমুখি হয়। অতিরিক্ত জনসংখ্যার চাপ যানজট সৃষ্টির প্রধান কারণ। ট্রাক, বাস, মাইক্রোবাস, রিকশা ও অন্যান্য গাড়ির সংখ্যা বৃদ্ধি যানজটের অন্যতম কারণ। অন্যদিকে আমাদের দেশে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা সঠিক নয়। গাড়ি চালকেরা তাদের ব্যক্তিগত ইচ্ছার জোরে গাড়ি চালিয়ে থাকে। যেখানে সেখানে অন্যায় ও বিশৃঙ্খল ভাবে গাড়ি থামিয়ে রাখা যানজটের আরেকটি অন্যতম কারণ। এটি গাড়ির চালক ও যাত্রীদের জন্য ভীষণ সংকট ও কষ্টকর সময়। এটি গুরুত্বপূর্ণ কাজের ক্ষতি করে। এছাড়াও এটি মানুষের মূল্যবান সময়ের অপচয় ঘটায়। এ সমস্যার সমাধানে আমাদের কতগুলো পদক্ষেপ গ্রহণ অত্যন্ত জরুরী প্রয়োজন। যানজট নিরসনে ট্রাফিক আইন কার্যকর করা প্রয়োজন। রাস্তা নির্মাণের সময় যথাযোগ্য পরিকল্পনা গ্রহণ করা প্রয়োজন। জনসাধারণকে হতে হবে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।

"যানজট অনুচ্ছেদ Class 10"

যানবাহন চলাচলে স্থবিরতাকে বলা হয় যানজট। জনবহুল এই বাংলাদেশের এক বিরাট সমস্যা যানজন। এই সমস্যা প্রকটতর হয়েছে দেশের রাজধানী ঢাকাতে। যানজটের সীমাহীন দুর্ভোগের শিকার ঢাকার প্রতিটি মানুষ। ঢাকা বাংলাদেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের মূল কেন্দ্র। তাই দেশের সকল শ্রেণির মানুষ ঢাকা শহরের দিকে ধাবিত হচ্ছে। জনগণের প্রয়োজনের সাথে তাল মিলিয়ে যানবাহনের সংখ্যাও বৃদ্ধি পাচ্ছে; যা তৈরি করছে যানজট। এছাড়া রাস্তার স্বল্পতা, অপ্রশস্ততা, অপরিকল্পিত নগরায়ণ, ট্রাফিক আইন অমান্য করাই হচ্ছে ঢাকা শহরের যানজটের অন্যতম কারণ। আর যানজটের ফলে প্রায়ই মারাত্মক সব দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। প্রয়োজনীয় কাজ যথাযথ সময়ে করা সম্ভব হয় না, যা ব্যক্তি ও সামাজিক জীবনসহ রাষ্ট্রীয় জীবনকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে। যানজট সমস্যা দূর করার জন্য অত্যন্ত সুষ্ঠুভাবে পরিকল্পনা প্রণয়ন করা প্রয়োজন। প্রশস্ত রাস্তা নির্মাণ, যানবাহন নিয়ন্ত্রণ আইন, ট্রাফিক আইন কঠোরভাবে পালন করাই হতে পারে এক্ষেত্রে কার্যকরী পদক্ষেপ। যানজট নিরসনে সরকার, ট্রাফিক-পুলিশ, গাড়ির চালক ও জনসাধারণ সবাইকে সচেতন হতে হবে।

"যানজট অনুচ্ছেদ"

রাজধানী ঢাকার (Dhaka) অন্যতম প্রধান সমস্যা যানজট। বিশেষ করে রাজধানী ঢাকা যানজটের শহর হিসেবেই যানজট থাকে। দুটি সিটি কর্পোরেশনে বিভক্ত এ মহানগরীর লোকসংখ্যা প্রায় দুই কোটি। বাস, ট্রাক, কার, অটো-রিক্শা ইত্যাদি মিলিয়ে কয়েক লাখ যান চলাচল করে প্রতিদিন। এসব যানের সুশৃঙ্খলভাবে চলার জন্য প্রশস্ত রাস্তা এখানে খুব বেশি নেই। বাইক আর রিক্শার দাপটে সাধারণ মানুষ ফুটপাতেও ঠিকমতো চলাচল করতে পারে না। এর ওপর রাস্তার দুপাশে পার্ক করা হয় কার, অটো বা রিক্শা। এছাড়া থাকে ছোট ছোট দোকানপাট, নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত বালি-রড-সিমেন্ট-ইট-পাথর ইত্যাদি। আবার সারা বছরই বিভিন্ন সংস্থা ইচ্ছেমতো রাস্তা কাটাকাটি করে। এসব কারণে যানজট অস্বস্তিকর হয়ে ওঠে। দুর্ভোগের শিকার হয় রোগী, ছাত্র-ছাত্রী, অফিসগামী মানুষ। নির্দিষ্ট সময়ের ২-৩ ঘণ্টা আগে রওনা হয়েও সঠিক সময়ে গন্তব্যে পৌঁছা যায় না। ইতোমধ্যে যানজট নিরসনের জন্য সরকার উড়াল সেতু, ওভারব্রিজ, আন্ডারপাস, নতুন রাস্তা বা লিংকরোড, মেট্রোরেল ইত্যাদি প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়নের প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url